সুনামগঞ্জের অর্ধশতাধিক মামলায় ৭০ শিশুর ব্যতিক্রমী শাস্তি

বিশ্ব শিশু দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জের ৫০টি মামলায় লঘু অপরাধে অভিযুক্ত ৭০ শিশুকে কারাগারে না পাঠিয়ে ৬টি শর্তে সংশোধনের জন্য মা-বাবার জিম্মায় দিয়েছেন আদালত।

তাদেরকে একবছরে কি কি ভালো কাজ করেছে সেগুলো লিখে রাখার জন্য আদালতের পক্ষ থেকে একটি করে ডায়রি উপহার দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে মামলা থেকে নিষ্পত্তি পাওয়ায় একটি করে গোলাপ ফুল দেওয়া হয় তাদের। এসময় ৭০ শিশুর মা-বাবা ও স্বজনরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে সুনামগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ও শিশু আদালতের বিচারক মো. জাকির হোসেন এ আদেশ দেন। রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সুনামগঞ্জ শিশু ও মানব পাচার আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. হাসান মাহবুব সাদী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জের ৫০টি মামলায় কোমলমতি ৭০ শিশুকে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে জড়ানো হয়েছিল। যার কারণে এসব শিশুদের আদালতে নিয়মিত হাজিরা দিতে হত। ফলে শিশুদের ভবিষ্যত ও শিক্ষা জীবন ব্যাহত হচ্ছিল। তাই শিশুদের এসব অসুবিধা থেকে মুক্তি দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিতে সকল মামলার নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন সুনামগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ও শিশু আদালত।

আদালতের ৬টি শর্তে বলা হয়েছে, এসব শিশুদেরকে প্রতিদিন ২টি ভাল কাজ করে আদালতের দেওয়া ডায়েরিতে লিখে রাখতে হবে এবং বছর শেষে ডায়েরি আদালতে জমা দিতে হবে। মা-বাবা ও গুরুজনদের আদেশ মানতে হবে, তাদের সেবাযত্ন ও কাজে সাহায্য করতে হবে। নিয়মিত ধর্মগ্রন্থ পাঠ ও ধর্ম-কর্ম করতে হব। অসৎ সঙ্গ ত্যাগ করা। মাদক থেকে দূর থাকা ও ভবিষ্যতে অপরাধের সঙ্গে না জড়ানো।

আদালত আরও বলেছে, এই রায়ের ফলে ছোট-খাটো অনেক মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি হয়েছে। শিশুরা তাদের আপন ঠিকানা ফিরে পেল। মা-বাবার দুঃশ্চিন্তার অবসান হল এবং সন্তানকে নিজের কাছে রেখে সংশোধনের সুযোগ পেল।

তবে যেসব শর্তে শিশুদের সংশোধনের সুযোগ দিয়ে পরিবারে ফেরত পাঠানো হল আদালতের সেই আদেশ সঠিকভাবে প্রতিপালিত হচ্ছে কিনা তা তিন মাস পর পর এক বছর পর্যবেক্ষণ করবেন জেলা সমাজসেবা প্রবেশন কর্মকর্তা মো. সফিউর রহমান।

প্রবেশন কর্মকর্তা মো. সফিউর রহমান বলেন, শিশু আদালত ৫০ টি মামলায় ৭০ অভিযুক্ত শিশুকে ৬টি শর্তে এক বছরের জন্য মুক্তি দিয়েছেন। শিশুরা আদালতের শর্ত ঠিকমত প্রতিপালন করছে কি না তা আমি দেখে আদালতে রিপোর্ট জমা দেব।

সুনামগঞ্জ শিশু ও মানবপাচার আদালতের অতিরিক্ত পি.পি অ্যাড. হাসান মাহবুব সাদী বলেন, বিশ্ব শিশু দিবস উপলক্ষে বিচারক যুগান্তকারী রায় দিয়েছেন। এই রায়ে ৫০টি মামলায় অভিযুক্ত ৭০ শিশু ৬ টি শর্তে তাদের মা-বাবার কোলে ফিরে গেল। তারা এখন স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরে গেল। আর তাদের আদালতে আসতে হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here