সরকার এ মুহূর্তে জনগণের নিরাপত্তার বিষয়টিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তে আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি বলে মন্তব্য করেছেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। খবর বাসসের।

জেলা প্রশাসক বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের এলার্ট (সতর্ক) করা হয়েছে, তারা যেন জনগণকে নিরাপদে থাকার নির্দেশনা দেন।

তিনি বলেন, এখন জরুরি সভার আহ্বান করা হয়েছে। সবাই মিলে বসে সিদ্ধান্ত নেব। সীমান্তের মানুষদের আরও কীভাবে নিরাপদে রাখা যায়, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এলাকাবাসীর নিরাপত্তার বিষয়টি চিন্তা করে ঘুমধুমের এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার রাতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু কোনারপাড়া সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ছোড়া চারটি মর্টারশেল এসে পড়ে। এতে শূন্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইকবাল নামে এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হন। আহত হন আরও চারজন।