মুম্বাইয়ে বহুতল ভবন ধস, নিহত ১১

ভারতের মুম্বাইয়ের মালাদের একটি বহুতল আবাসিক ভবন ধসে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (১০ জুন) মুম্বাইয়ের মালাদে এ ঘটনাটি ঘটে। আগেরদিন রাতের ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে ভবনটি বিধ্বস্ত হতে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভবনটি পাশে থাকা ছোট ছোট ভবনগুলোর ওপর ভেঙে পড়ে। পুলিশ জানায়, ধ্বংসাবশেষ থেকে ১৮ জনকে টেনে তোলা হয়েছে তবে তাদের মধ্যে মাত্র সাতজন বেঁচে ছিলেন।

এলাকাটির স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, “ঘটনাটি ঘটে সকাল সোয়া ১০টার দিকে। দুজন ব্যক্তি আমাদের ভবন ত্যাগ করার কথা বলার পর আমি বেরিয়ে আসি। ছুটে বের হতেই দেখি আমাদের ভবনের পাশের তিনটি ভবন ভেঙে পড়েছে”।

স্থানীয় প্রশাসনের এক ঊধ্বতন কর্মকর্তার মতে, ধ্বংসাবশেষে আরও বেশি লোকের আটকে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আটকে পড়ে যাওয়া ব্যক্তিদের উদ্ধার করার প্রচেষ্টা চলছে। আগামী দিনগুলিতে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকায় তারা এলাকার অন্যান্য জরাজীর্ণ ভবনগুলি সরিয়ে নিয়েছেন। বৃষ্টিপাতের কারণে বেশ কয়েকটি এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হবার কারণে শহরে বিশেষ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

এ দুর্ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়ে একজন মন্ত্রী বলেন, বুধবার (৯ জুন) রাতের ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে ভবনটি বিধ্বস্ত হতে পারে।

পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা দিলীপ সাওয়ান্ত স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, “পুলিশ যথাযথ তদন্ত করবে এবং পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে।”

মহারাষ্ট্রের রাজ্য মন্ত্রী আসলাম শাইখ বলেন, “জীবিতদের মধ্যে যারা এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকা পড়ে থাকতে পারে। তাদের সন্ধান করতে উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, শহরের অন্যান্য অংশ থেকে দেয়াল ধসের মত ছোট ছোট ঘটনার খবর পাওয়া গেছে, তবে এখনও পর্যন্ত আহত হওয়ার কোনও খবর পাওয়া যায়নি।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, আগামী কয়েকদিন ধরে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে নগরীতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হবে এবং নিম্নাঞ্চলগুলো বন্যার ঝুঁকিতে থাকবে।