মোশতাক আহমেদ শাওন।নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যার মামলায় তিন আসামির যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে মামলার দুই আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল আসামিদের উপস্থিতিতে এই আদেশ দেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ইব্রাহিম ওরফে মনা, হৃদয় ও জহিরুল ইসলাম ওরফে টিটু। খালাস পেয়েছেন হাবিব ও শাওন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১০ অক্টোবর সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার এনায়েতনগর ইউনিয়নের মধ্য ধর্মগঞ্জ এলাকায় রাজিম উদ্দিনের বাড়ির ২য় তলায় বাদির কন্যাকে গণধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পরদিন নিহতের মা বাদি হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

আদালত পুলিশের পরির্দশক আসাদুজ্জামান জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ইকবাল পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন। পরে বিচারকাজ শুরু হলে এই মামলায় এগারোজন আদালতে স্বাক্ষ্য দেন।
এই স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আসামি ইব্রাহিম, হৃদয় ও জহিরুলকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি (পিপি) এড. রকিব উদ্দিন বলেন, দেরিতে হলেও বাদিপক্ষ ন্যায়বিচার পেয়েছেন। এই রায়ের ব্যাপারে তারা সন্তুষ্ট আছেন।