গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, আজ বিএনপি পরিচালিত হচ্ছে আল্লাহর ওহি (হুকুমনামা) দিয়ে। ওহি লন্ডন থেকেই বেশী আসে। বাইরে থেকে হুকুমনামা দিয়ে হবে না। এই স্বৈরতান্ত্রিক সরকারের পতন ঘটাতে হলে সবচেয়ে বেশী পরিবর্তন ঘটাতে হবে বিএনপির নিজের ঘরে। সরকার যেভাবে খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে, বিএনপি হয়তো উপলব্ধি করতে পারছে না।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী-শিক্ষায় প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি এবং করোনাকালীন শিক্ষা বাজেট:  ২০২১-২০২২’ শীর্ষক এই সভার আয়োজন করে অ্যাডুকেশন রিফর্ম ইনশিয়েটিভ (ইআরআই)।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, খালেদা জিয়ার চেহারা দেখেছেন, মনের মধ্যে একটা ডিপ্রেশনের ভাব। তারা (সরকার) যেভাবে উনাকে জীবিত থেকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে, বিএনপির লোকেরা হয়তো উপলব্ধি করতে পারে না। তার যদি মুক্তি চায়, আমি বারবার বলেছি তারেক রহমান তুমি ২ বছর চুপচাপ বসে থাকো। পারতো বিলেতে লেখাপড়ায় যুক্ত হয়ে যাও, সেখানে বহুভাবে লেখাপড়া হয়। আজকে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছাড়া ক্ষমতার পরিবর্তন সম্ভব না।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ড. আ ন ম এহছানুল হক মিলন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার উল্লাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ইআরআই’র সদস্য সচিব মোশাররাফ আহমেদ ঠাকুর ও গণস্বাস্থ্যের মিডিয়া উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টুর যৌথ সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, মেজর জেনারেল (অব.) ফজলে এলাহী আকবর, সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ সেলিম ভুইয়া, অধ্যাপিক দিলারা চৌধুরী, ড. আবদুল লতিফ মাছুম, ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, সাংবাদিক নেতা এম আবদুল্লাহ ও কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ।