মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারপতি হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক নুসরাত জাহান চৌধুরী। নিয়োগ পেলে তিনি হবেন প্রথম নারী মুসলিম-আমেরিকান ফেডারেল বিচারপতি।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এই মনোনয়ন দিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে। নতুন বিচারপতিদের মনোনয়ন দেয়ার ক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের একটি লক্ষ্য ছিল আমেরিকার বিচার বিভাগে বৈচিত্র্য আনা। খবর বিবিসি বাংলার।

প্রেসিডেন্টের এই মনোনয়ন যদি মার্কিন সংসদের উচ্চকক্ষ সিনেটে পাশ হয়, তাহলে নুসরাত জাহান চৌধুরী নিউইয়র্ক স্টেটের ফেডারেল কোর্টে বিচারকার্য পরিচালনা করবেন।

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ফেডারেল বিচারপতি হিসেবে প্রেসিডেন্ট আটজনকে মনোনয়ন দিয়েছেন। এবং তাদের সবাই অসাধারণ যোগ্যতাসম্পন্ন, অভিজ্ঞ এবং আইনের শাসন ও সংবিধানের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

শাহজালাল বিমানবন্দর। ইমিগ্রেশনে পদে পদে দুর্ব্যবহার

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে নুসরাত জাহান চৌধুরীর একটি সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দেয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে যে, নুসরাত জাহান চৌধুরী ২০২০ সাল পর্যন্ত ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নের লিগ্যাল ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেছেন।

এছাড়া তিনি ২০০৮ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত নিউইয়র্কে আমেরিকার সিভিল রাইটস ইউনিয়নে বিভিন্ন পদে কাজ করেছেন। সর্বশেষ ২০১৮ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত তিনি রেসিয়াল জাস্টিস প্রোগ্রাম এর ডেপুটি ডিরেক্টর ছিলেন।

নুসরাত জাহান চৌধুরী ২০১৬ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত রেসিয়াল জাস্টিস প্রোগ্রাম এর সিনিয়র স্টাফ অ্যাটর্নি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

নুসরাত জাহান চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ল স্কুল, প্রিন্সটন স্কুল অব পাবলিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স এবং লাম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে পড়াশুনা করেন।

মতামত। কাজাখস্তানে একনায়কত্ব ও তিন মেয়ের লুটপাটের কাহিনি

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বিচারালয়ে বৈচিত্র্য থাকার বিষয়টি আমেরিকার অন্যতম একটি বড় সম্পদ। প্রেসিডেন্ট বাইডেন এই বৈচিত্র্যের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং এ দফায় যাদের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, সেটি প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রতিশ্রুতি পূরণ করার ধারাবাহিকতা।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর গত এক বছরে ১৩ দফায় ৮৩জন বিচারপতি মনোনয়ন দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here