বরিশালে হর্ণ বাজলেই জেল জরিমানা

বরিশাল প্রতিনিধি।

বাংলাদেশের বরিশালে তিনটি প্রতিষ্ঠানিক এলাকাকে নিরব এলাকা হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন পরিবেশ অধিদপ্তর কতৃপক্ষ। এসব এলাকায় হর্ণ বাজালেই গুনতে হবে জেল ও জরিমানা।

নগরীর শের ‍ইবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সদর হাসপাতাল ও শহীদ অ্যাডভোকেট আব্দুর রব সেরনিয়াবাদ আইন মহাবিদ্যালয়কে নিরব এলাকা ঘোষণা করা হয়েছে। ‍এক‍ই সাথে ওই সকল এলাকায় শব্দদূষণ না করার জন্য ৯ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে হর্ণ বাজানো নিষিদ্ধ প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে পরিবেশ অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়।

 

শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারিত্বমূলক প্রকল্পের আওতায় বৃহষ্পতিবার এই তিনটি এলাকায় জোর প্রচারণা শুরু করেন পরিবেশ দপ্তরের কর্মকর্তারা।

এ সময় শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আব্দুর রাজ্জাক, পরিবেশ অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক তোতা মিয়া, সহকারী বায়োক্যামিস্ট মুনতাছির রহমান, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সমন্বয়কারী রফিকুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

 

বরিশাল জেলা তথ্য অফিস এ প্রচার কাজ পরিচালনা করছে। প্রচারণায় জানানো হয় শব্দদূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা ২০০৬ অনুসারে নিরব এলাকায় যানবাহনে চলাচলকালে হর্ণ বাজানো নিষেধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।এসময় প্রচারণার অংশ হিসেবে জনসাধারণের মাঝে  লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে।

 

এতে জানানো হয় শব্দদূষণের ফলে শ্রবণশক্তি হ্রাস ও স্থায়ীভাবে নষ্ট হয়। উচ্চ রক্তচাপ ও ফুসফুসজনিত জটিলতা, ক্ষুধামান্দা, হৃদরোগ, মস্তিস্ক বিকৃতি, অনিদ্র ও স্মরণশক্তি হ্রাস পায়।

 

এ আইন অমান্যকারীদের জন্য একমাস কারাদন্ড বা ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন বলে জানানো হয়। পরবর্তী অপরাধের জন্য অনধিক ৬ মাস কারাদন্ড বা ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here