পলাশবাড়ীর পশ্চিম রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ নির্মাণ সামগ্রীর স্তুপ ও পিস গলানো চুলা

$CoMmEntU

আশরাফুল ইসলাম গাইবান্ধা ::গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার পশ্চিম রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকদের নানা অনিয়ম ও দায়িত্ব অবহেলার কারণের উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থায় ধস নেমেছে।  বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমে গেছে৷ এছাড়াও বিদ্যালয়ের মাঠ একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে নির্মাণ সামগ্রীর মালামাল রাখার জন্য মৌখিক ভাবে ভাড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে  প্রধান শিক্ষকের তৌহিদ হোসেনের বিরুদ্ধে।

আজ ১৯ সেপ্টেম্বর সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পশ্চিম রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে গিয়ে দেখা যায় সড়ক পাকা করণ কাজের নির্মাণ সামগ্রী স্তুপ করেছেন। এছাড়াও পিস গলানোর চুলা তৈরী করেছেন পাশে স্তুপ করে রাখা জ্বালানী হিসাবে প্লাস্টিক ও পুরান জুতার স্তুপ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান বিদ্যালয়ের মাঠ ভাড়া দিয়েছে প্রধান শিক্ষক তৌহিদ হোসনে।

এবিষয়ে প্রধান শিক্ষক তৌহিদুজ্জামান জানান,সড়ক নির্মাণ কাজের ঠিকাদার মুন্নার অনুরোধে মাঠে নির্মাণ সামগ্রী রাখা হয়েছে কাউকে মাঠ ভাড়া দেওয়া হয়নি। এসময় শিক্ষক মুভমেন্ট রেজিস্টার ও শিক্ষক পাঠ টিকা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেনি৷ অপর দিকে দায়িত্ব অবহেলার বিষয়ে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি নন সহকারি শিক্ষক গণ।

এবিষয়ে উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার ফিরোজ কবির মুঠোফোনে  বলেন ,বিদ্যালয়ের মাঠে নির্মাণ সামগ্রী রাখার সুযোগ নাই। আর বিদ্যালয়ের শিক্ষক মুভমেন্ট ও পাঠ টিকা বাধ্যতা মুলক সেই না আমি ১২ বছর চাকুরী বয়সে প্রথম শুনলাম। বিষয় গুলো দেখে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷