নারীদেরও তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যেতে হবে: স্পিকার

৯ মার্চ ২০২১ ।  জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বিশ্বায়নের যুগে তথ্যপ্রযুক্তি দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে আমাদের দেশের নারীদেরও তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যেতে হবে, তা হলে আমরা এস ডিজি গোল দ্রুত এসিভ করতে পারবো। সংবিধানের ২৮ ধারা অনুযায়ী সকল ক্ষেত্রে নারী পুরুষের সমতা বিধান, মজুরির সমতা ও কর্মস্থলকে নারীবান্ধব করতে হবে।
মঙ্গলবার (৯ মার্চ) ডিআরইউ এর নারীদের প্রকাশনী কন্ঠস্বরের মোড়ক উম্নোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, বিগত ৫০ বছরে নারীদের আজকের এ যায়গায় আসতে অনেক প্রতিকুলতার মধ্য দিয়ে এগুতে হয়েছে। শিক্ষা ক্ষেত্রে নারীরা আজ অনেক এগিয়ে গেছে। গ্লোবাল জেনারেল রিপোর্টে ও বাংলাদেশের নারীর ক্ষমতায়নে অনেক ভালো অবস্থায় রয়েছে।
তিনি মনে করেন, আজ বাংলাদেশে নারীরা যেসব উচ্চ পদে ও স্থানে অবস্থান করছেন তা তারা নিজগুনে মেধায়, সক্ষমতার এ স্থান অর্জন করেছেন। বঙ্গবন্ধু জাতীয় সংসদে ১৫ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য থাকলেও আজ তা বৃদ্ধি পেয়ে শেখ হাসিনা সরকারের আমলে ৫০ জনসহ সরাসরি নির্বাচিত হয়ে আসার সুযোগ রয়েছে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে নারীরা সব চেয়ে বেশি সমস্যা মোকাবিলা করতে হচ্ছে এবং হয়েছে। তাদের জন্য যে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে তা প্রাপ্তি আরও সরলীকরণ করার কথা বলেন তিনি।
ঢাকা রিপার্টার্স ইউনিটি আয়োজিত ‘পাঁচ দশকে বিভিন্ন পেশায় নারীর অগ্রগতি, সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীসহ এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু, বিশিষ্ট নারী নেত্রী রোকেয়া কবীর, নারী নেত্রী তাসলিমা হোসেন প্রমুখ।
ডিআরইউ কতৃক সংগঠনটির সাবেক সহ সভাপতি মাহমুদা চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, সিনিয়র সাংবাদিক শাহনাজ বেগম, নাদিরা কিরণ, আঙ্গুর নাহার মন্টি এবং বাংলা ভিশনের নিউজ এডিটর শারমিন রিনভীকে সম্মাননা জানানো হয়।
অনুষ্ঠানে বক্তারা নারীদের প্রতি সহিংসতা বন্ধ করা, ধর্ষণ নির্যাতন বন্ধে কঠোর আইন প্রয়োগসহ নারী বান্ধব কর্মস্থল নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।