শনিবার ভোরের টিএলটি স্পেশাল বুলেটিনে স্বাগত জানাচ্ছি আমি সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ।

হঠাত করে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির সংবাদে সারাদেশ অস্থির হয়ে উঠেছে। সররত্র তেলের জন্য হাহাকার, হাতাহাতি মারামারির ঘটনাও ঘটছে। চট্রগ্রাম থেকে ঢাকাগামী বাস না ছাড়ার ঘোষণা। এ নিয়ে আজকের স্পেশাল বুলেটিন। ঢাকা চট্রগ্রাম রংপুর রাজশাহী খুলনা পটুয়াখালী সহ সারাদেশের জ্বালানি তেল নিয়ে অস্থিরতার সংবাদ শুনতে প্লে বাটনে ক্লিক করুন

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার খবরে রাজধানী সহ দেশের সব জেলার পেট্রোল পাম্পগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় শুরু হয়। বিশেষ করে বাইকারদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। রাজধানীর মতিঝিল সহ সব পেট্রোল পাম্পের শত শত বাইকার তেল নেয়ার জন্য ভিড় করে। কিন্তু তেলের দাম বাড়ার খবর জানার সঙ্গে সঙ্গে পেট্রোল পাম্প গুলো তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে হঠাৎ করেই জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়। রাত বারোটা থেকে এই দাম কার্যকর হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

চট্টগ্রামে থেকে কোনো গাড়ি ঢাকা ও কুমিল্লায় আসবে না

সকালে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দেয়ার ৮ ঘন্টার মধ্যেই সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে । শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকে নতুন দাম কার্যকর হবে।

রাত থেকে ঢাকায় সিটি বাস বন্ধ, অস্থির সারাদেশ

এক লাফে ডিজেল ও কেরোসিনে লিটারে বেড়েছে ৩৪ টাকা। নতুন করে ডিজেল ও কেরোসিন এখন ভোক্তাকে কিনতে হবে ১১৪ টাকায়। অন্য দিকে অকটেনে প্রতি লিটারে বাড়ানো হয়েছে ৪৬ টাকা। এখন প্রতি লিটার অকটেন ১৩৫ টাকা হয়েছে। পেট্রোল ৪৪ টাকা বেড়ে হয়েছে ১৩০ টাকা লিটার।

পেট্রোল পাম্পগুলোতে উপচে পড়া ভিড়, মিলছে না তেল