তাহমিনা শিল্পীর কবিতা |

❑ গভীর ঘুমের রাত্রিবাস
আধখানা বিমর্ষ চাঁদের আলোয়
স্বপ্নপোড়া চোখে জমিয়ে রাখি
ভগ্নাবশেষ জীবনের যাবতীয় গদ্য-পদ্য
আয়োজন করে বলবো,তার ফুরসৎ নেই
সবার এত তড়িঘড়ি,
গলার কাছে আটকে যায় হা-হুতাশ।
পাখি হলে ভালো হত-
অন্তত বাতাসের বিপরীতে দু-একজনের পিছু নেয়া যেত
কিচিরমিচির করে খেলা যেত দুদণ্ড ডুব-সাঁতার
বাতাসে ছড়াতাম নতুন গান
তারপর বেমালুম সব ভুলে গভীর ঘুমের রাত্রিবাস।
❑ উনুন পোড়া কঙ্কাল
সূর্য ছুঁয়ে বুকের ভাঁজে রচনা করেছি সবুজ বন
কন-কনে শীত সন্ধ্যা সাজিয়েছি চোখের ভেতর
সারাগায়ে মেখেছি ধূপের সুগন্ধি
বিনুনির চক্রে গেঁথেছি আকাশ ভাঙা জোছনা
আর তুমি,পাহাড়ি ঢলের মত হঠাৎ নেমে এসে
খুঁজছো নরম শরীরের শহর!
বলো,কতটা কাছে এলে
ভালোবাসা বুঝতে পারবে?
কতটা হৃদয় খুঁড়লে দেখতে পাবে
উনুন পোড়া কয়লার কঙ্কাল?
❑ দূর নক্ষত্রের খোঁজে
সাতরঙা চায়ের পেয়ালায় অপেক্ষার প্রহর গুনি
অনামিকায় রেশমি সুঁতো গেঁথে,
সাগরিকা সেলাইয়ের সুক্ষ্ণ নকশায়
হৃদয়ের সুগন্ধি রুমালে
আঁকি তোমার মুখচ্ছবি।
সবটকু সুঁতো শেষ হলে দেখি-
তুমি নও! বিরহ এঁকেছি।
[মিরপুর, ঢাকা]