জাতীয় সরকারের প্রস্তাব জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে জাতীয় সরকার নয়। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শেখ রেহানা ও তার ছেলে, তোফায়েল আহমেদ, মতিয়া চৌধুরী, বিএনপির যারা আছেন এবং আমরা সাধারণ মানুষ যারা আছি, তাদের নিয়ে জাতীয় সরকার করেন।

‘সত্যিকারের নির্বাচন কমিশন’ গঠনের আগে জাতীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে জাতীয় সরকার নয়। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শেখ রেহানা ও তার ছেলে, তোফায়েল আহমেদ, মতিয়া চৌধুরী, বিএনপির যারা আছেন এবং আমরা সাধারণ মানুষ যারা আছি, তাদের নিয়ে জাতীয় সরকার করেন।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে মহান মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর এমএজি ওসমানীর ১০৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিতর্ক ও তার প্রভাব’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় স্মরণ মঞ্চ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘সরকারের মাথায় কোন ষড়যন্ত্র খেলা করছে তা এখনও স্পষ্ট হয়ে ওঠেনি। তবে একটি না একটি ষড়যন্ত্র পাকাচ্ছে।’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না বলেন, যারা মনে করেন আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে পারলে আমরা গণতন্ত্রের স্বাদ পাবো, তাদের মনে রাখতে হবে—এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে কোনও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। উনি (শেখ হাসিনা) ক্ষমতায় থাকলে নির্বাচন কমিশন কেন, প্রধান বিচারপতিরও ক্ষমতা নেই। তিনি (শেখ হাসিনা) যেভাবে চাইবেন সেভাবে হবে।’

ডাকসুর সাবেক ভিপি নূরুল হক নূর বলেন, ‘জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো থেকে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে নিতেই জিয়াউর রহমানের কবরস্থান থেকে শুরু করে তার মুক্তিযুদ্ধে অবদান নিয়ে বিতর্ক তৈরি করা হয়েছে। এটা ইচ্ছাকৃত করা হচ্ছে। এর পেছনে দুরভিসন্ধি আছে।’

জাতীয় স্মরণ মঞ্চের সভাপতি প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান দেওয়ান মানিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, নেজামে ইসলাম পার্টির নির্বাহী সভাপতি একেএম আশরাফুল হক প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here