হলিউডের ওপর থেকে হেলিকপ্টারে করে যাওয়ার সময় এক অদ্ভুত দৃশ্য দেখলেন বিজ্ঞাপন ব্যবসায়ী জিম বায়রন। একটি মেয়ে ঘোড়ার পিঠে বসে পাহাড়ের ওপর চরে বেড়াচ্ছে। তিনি সেখানে হেলিকপ্টার নামিয়ে মেয়েটির দিকে এগিয়ে যান। ইভাট মিমিও নামের ১৫ বছরের মেয়েটিকে নিজের কার্ড বের করে দেন। তত দিনে মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন মিমিও। এক সময় তিনি কাজ শুরু করেন বায়রনের সঙ্গে। ২১ বছর পার হওয়ার আগেই মিমিও ৮টি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেন। সে সময় সাঁতারের পোশাকে পর্দায় হাজির হয়ে রীতিমতো ঝড় তুলেছিলেন মিমিও।

টিআইবি।নাগরিক সমাজের মতামত ছাড়া ইসি গঠন আইন ব্যর্থ হবে

১৯৬৩ সালের ‘টয়েস ইন দ্য অ্যাটিক’ ছবিতে একজন নববধূর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন মিমিও। ১৯৬৪ সালে ‘ড. কিলডেয়ার’ ছবিতে অভিনয় করেন মৃগী রোগীর ভূমিকায়। ১৯৬৫ সালে ‘জয় ইন দ্য মর্নিং’ ছবিতে আবারও নববধূর চরিত্রে অভিনয় করেন। এগুলো ছাড়াও ‘দ্য মোস্ট ডেডলি গেম’ সিরিজে অভিনয়ের জন্য তিনি তিনবার গোল্ডেন গ্লোবের জন্য মনোনয়ন পেয়েছিলেন। ৭০–৮০ দশকে তাঁকে টেলিভিশনের সিনেমায় অভিনয় করতে দেখা যেত। সেসবের বেশ কয়েকটির চিত্রনাট্য লেখায় সাহায্য করেছিলেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here