খুলনায় ‘অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংক প্রকল্প’ উদ্বোধন করলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

ইমন শেখ, খুলনা।

খুলনার শতভাগ উপজেলায় করোনাকালীন এবং করোনা পরবর্তী সময়ে জনগণের জন্য অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিতকল্পে ‘অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংক, হাইফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা ও ২০ শয্যা বিশিষ্ট আইসিইউ সুবিধার ভিত্তিমূল নিশ্চিতকরণ প্রকল্প’-এর উদ্বোধন করলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি। বুধবার (১৬ জুন) জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে উক্ত প্রকল্পের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে খুলনা জেলা প্রশাসন।

অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম ‘জুম’ এর মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রকল্পটির উদ্বোধন করেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার সচিব মোঃ কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো: ইসমাইল হোসেন এনডিসি, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সৈয়দ মজিবুল হক এবং খুলনার বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডাঃ রাশেদা সুলতানা। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন খুলনার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান,খুলনার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম জাহিদ হোসেন এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ। এছাড়াও বিভিন্ন উপজেলা থেকে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন স্ব স্ব উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খুলনার জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই মাইক্রোসফট পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে উক্ত প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি তাঁর বক্তব্যে বলেন যে, এই উদ্যোগটি অনন্য এবং নজিরবিহীন। চিকিৎসকবৃন্দএবং জনপ্রতিনিধিগণকে সম্পৃক্ত করে গৃহীত এই উদ্যোগটি মডেল হিসেবে গণ্য করে সকল জেলা-উপজেলায় রেপ্লিকেট করা যেতে পারে। মাঠ প্রশাসনের সক্রিয়তা করোনা মোকাবেলায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। সীমিত সম্পদের মধ্যে খুলনা জেলা প্রশাসনের চিকিৎসাসেবার কাঙ্খিত উন্নয়নে যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তার জন্য জেলা প্রশাসনকে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং ভবিষ্যতে এই উদ্যোগের মান নিয়ন্ত্রণ ও ধারাবাহিকতা নিশ্চিতকরণে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবানও জানান প্রতিমন্ত্রী।

মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার সচিব মোঃ কামাল হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন যে, জেলা প্রশাসনের এ উদ্যোগের মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী অক্সিজেনসহ অন্যান্য সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে। এই উদ্যোগের টেকসই ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করতে হবে। খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো: ইসমাইল হোসেন এনডিসি বলেন যে, খুলনার উপকূলীয় অঞ্চলসহ অন্যান্য এলাকায় অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংক এবং হাই ফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা সুবিধা স্বাস্থ্যসেবায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে।

এ উদ্যোগটি ধরে রেখে পর্যায়ক্রমে সুবিধা বৃদ্ধি করতে হবে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সৈয়দ মজিবুল হক বলেন যে, খুলনার জেলা প্রশাসনের এই অনন্যসাধারণ উদ্যোগটির মাধ্যমে উপজেলাতেই উন্নত চিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব হবে। এতে জেলায় করোনা এবং অন্যান্য রোগীর চাপ কমবে।

খুলনার বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডাঃ রাশেদা সুলতানা বলেন যে, খুলনার প্রত্যেক উপজেলায় অসহায় রোগীদের জন্য জেলা প্রশাসক যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তা খুলনা জেলার প্রান্তিক অঞ্চলের স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে অসাধারণ ভুমিকা পালন করবে।

খুলনার সিভিল সার্জন জনাব ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, জেলা প্রশাসক নিজ উদ্যোগে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যাংক এবং হাই ফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা সুবিধা নিশ্চিতকল্পে চিকিৎসক এবং বিশেষজ্ঞদের মতামত গ্রহণ করে এই প্রকল্পটি গ্রহণ করেছেন। এছাড়া পুলিশ সুপার, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ খুলনা জেলা প্রশাসনের এ উদ্যোগটিকে অভিনব, অনন্য এবং জীবন রক্ষাকারী বলে অবহিত করেন এবং মাননীয় প্রধান অতিথিকে এবং উদ্যোক্তা হিসেবে খুলনা জেলা প্রশাসককে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং খুলনার স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে টেকসই উন্নয়নের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।