খালেদুল হক, কুবি প্রতিনিধি, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) মাকেটিং বিভাগ কতৃক আয়োজিত আন্তর্জাতিক একাডেমিক ইন্টিগ্রিটি ও প্লেজারিজম বিষয়ে ওয়েবনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ভার্চুয়াল জুম এ্যাপে উচ্চ শিক্ষা ও রির্চাস স্কলারদের নিয়ে সেশনটির আয়োজন করা হয়। মাকেটিং বিভাগের প্রভাষক মাহফুজুর রহমানে সঞ্চালনায় সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো: আসাদুজ্জামান। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাকেটিং বিভাগের চেয়্যারমেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন সরকার। প্রধান বক্তা ছিলেন দক্ষিণ এশিয়ার টার্নিটিন সিনিয়র পরামর্শদাতা বরুণ পিপলানি এবং মাকেটিং বিভাগের ছাত্র উপদেষ্টা ও সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সোলায়মান। ওয়েবনারে ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো: আসাদুজ্জামান বলেন, বর্তমানে যেকোন কিছুর তথ্য ইন্টারনেটে পাওয়া যায়। ফলে অনেক শিক্ষার্থীদের জন্য এইটা একটা ক্ষতিকর জিনিস। প্লেজারিজমের কারণে নিজের জ্ঞান বুদ্ধি দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। ইন্টারনের থেকে কোন লেখা কপি করে সেটা আবার অন্য জায়গায় ব্যবহার করা কখনও উচিত । তাই শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা ও নিজের ক্যারিয়ের জন্য একাডেমিক স্কিলের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল, জার্নাল এবং রিচার্সের দিকে নজর দিতে হবে।

প্রধান বক্তা বরুণ পিপলানি বলেন, প্লেজারিজম সকলের জন্য ক্ষতিকর। আমরা কোন আর্টিকেল বা জার্নাল পাবলিশ করার সময় ভালো করে প্লেজারিজম খেয়াল করতে হবে। ডাটা বা রির্চাসের জন্য কোন জায়গা থেকে তথ্য নিলে সেটা প্যারাপেইস করে এবং কোটেশন ব্যবহার করে দিতে হবে। আর অবশ্যই সেই রেফারেন্স দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান যুগে ইন্টারনেটে প্রবেশ করলে যেকোন মহুর্তে একাডেমিক বা রির্চাসের বিভিন্ন ডকুমেন্ট পাওয়া যাবে। ফলে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা রির্চাস পেপার এবং একাডেমিক কার্যক্রম ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃতভাবে প্লেজারিজমের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। এই অসদাচরণ কাজের জন্য আমাদের বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হয়। এ সময় সেমিনারে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মালদ্বীপ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি, ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া এবং তাইওয়ানসহ মোট ১১টি দেশের ৫৭ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here