তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মুন্সীবাজার ইউপি ভূমি অফিসের প্রধান ফটক ঘেঁষেই বসে স্থানীয় মাছ বাজার। ভূমি অফিসে প্রবেশের একমাত্র রাস্তাটিও দখল করে রেখেছেন স্থানীয় দোকানিরা। প্রতিদিন মাছ বাজারের সকল ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে ভূমি অফিসের ফটকের সামনেই। তা থেকে ছড়াচ্ছে বিশ্রী দুর্গন্ধ। দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ অফিসটিতে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারী আর অফিসে আসা সেবা গ্রহীতারা।

সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, অফিসের ফটকের দু’পাশেই ময়লা-আবর্জনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। তাতে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। দীর্ঘদিন ধরে এ অবস্থা চলায় গা সহা হয়ে গিয়েছে অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী আর সেবা গ্রহীতাদের। কিন্তু গত কিছু দিনের ভ্যাপসা গরম আর ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের ফলে পচা ময়লা-আবর্জনার দুর্গন্ধ বাতাসের সঙ্গে মিশে পরিবেশ দূষিত করছে। জমে থাকা পানি পচে অসহনীয় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।


দুর্গন্ধে তাদের অফিস করাই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। শুধু অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী নয়, অফিসে সেবা নিতে আসা লোকজনের অফিসে অবস্থান করাও কঠিন হয়ে পড়ছে। অনেককে নাকে রুমাল দিয়ে অফিস করতে দেখা যায়। কেউ কেউ হাত দিয়ে নাক-মুখ চেপে ধরে অফিসে চলাচল করছেন।

প্রতিদিন এমন অবর্ণনীয় ভোগান্তিতে পড়ছেন তারা। অফিসের কর্মকর্তা আর স্থানীয়রা প্রতিবাদ করেও পাচ্ছেন না এ দুর্গন্ধ থেকে মুক্তির কোনো প্রতিকার! উপজেলার মুন্সীবাজার ইউনিয়ন অফিসের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা নৃত্য গোপাল গোস্বামীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি ও সৃষ্টি করা হয়েছে। বর্তমানে দুর্গন্ধে অফিস করাই দুষ্কর হয়ে পড়েছে।

বিষয়টি বাজার কমিটিকে জানিয়েও কোনো সুরাহা হচ্ছে না। কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া আক্তার সাংবাদিকদের বলেন, মাছ বাজারের কারণে এ সমস্যা হচ্ছে। বিষয়টি সমাধানে একটি পরিকল্পনা ও নেয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান। অতি দ্রুত এর সুরাহার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।