সৈয়দ মুন্তাছির রিমন
বাবা, বাবা ওবাবা
তোমার সমাধি সম্মুখ যতবার দাড়াই
ততবার নয়নের কোনে অশ্রু ভেসে যায়,
তোমার কবরের চারপাশে কত জঙ্গল
তাই দেখে মোর দেহে জাগে কম্পন,
আমার দু’হাত তোলে করি মুনাজাত
প্রভু রাখে তোমায় রহমতের বাগান।
বাবা, বাবা ওবাবা
যদি তুমি জেগে উঠতে একবার
দু’চোখ খোলে দেখতে পেতে আবার
তোমার ছেলেরা আকাশে পাড়ি জমায়,
অভাবের জ্বালার নেই কোন তাড়না
খুশির আমেজে বাহারি রঙের বাড়তা,
দু’ভাই মিলে এক জামা পড়ার স্মৃতি
পাঠশালার মগ্ন প্রীতি হলো সব ইতি।
বাবা, বাবা ওবাবা
আজ তোমার রেখে যাওয়া ছোট্র খোকা
বায়নার আগে সব পেয়ে খুশির মহারাজা,
তোমার মেজোছেলে অনেক বড় হয়েছে
তোমার মত করে কথা বলতে শিখেছে,
প্রভুর দয়ার সাগরে পূর্ণিমার চাঁদের মতো
আমাদের ঘরে সূখের বন্যার মেলা জমেছে।
বাবা, বাবা ওবাবা
তোমার নীাত-আদশ্য বুকে ধারন করে
স্মৃতির পাতায় চোখ বুলিয়ে গর্বিত হয়েছি,
তোমার নাম শূনলে অনেকে শ্রদ্ধা করেছে
সততার মহাপ্রলয়ে শহরজুড়ে জাগরণ হয়েছে,
পত্রিকা পাড়ায় নির্মম ত্যাগ রাজ্যের পরাজয়
জীবনের মৌলিক অধিকার প্রাণটি হারায়।
বাবা-বাবা ওবাবা
আজ কেন মোর চোখে এতো জ্বল ঝড়ছে
তোমার রাগী ছেলেটি আজ বুঝতে শিখেছে,
তোমার কালো ছেলেটা একটু বোকা রয়েছে
আমি শুধু তাদের দিকে চেয়ে নিশ্চুপ থেকেছি,
তোমার কথা অগোচরে নিরবে স্মরণ করেছি
তোমার কবরের পাশে বার-বার তোমাকে খুঁজেছি।