ইভিএমে আঙ্গুলের ছাপ জটিলতায় ভোট দিতে পারেননি ৫%ভোটার!

অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুরঃ
আঙ্গুলের ছাপ জটিলতায় ভোট দিতে পারেননি অন্তত ৫ % ভোটার! লক্ষ্মীপুরের রামগতির পৌরসভা নির্বাচনে ভোটিং মেশিন ইভিএমে আঙ্গুলের ছাপ না মেলায় ভোট দিতে পারেননি। চর হাসান  হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গেলে এমরান হোসেন এবং আবদুর রহিম নামের দুইজন ভোটার অভিযোগ করেন, ইভিএম মেশিনে তাদের আঙ্গুলের ছাপ না মিলানোর কারণে তারা ভোট দিতে পারেননি। এমন জটিলতায় একেকজন ভোটার কেন্দ্রে দুই থেকে তিনবার এসেছেন  বলে অনেক ভোটারের সাথে কথা বলে জানা গেছে। আবার অনেকের ন্যাশনাল আইডি ও ভোটার আইডির নাম্বার একরকম মিলার কারণেও জটিলতায় পড়েছেন। এতে করে অন্তত ৫ শতাংশ ভোটার ভোট দিতে পারেননি বলে ধারণা করা হচ্ছে।
কেন্দ্রের বাহিরে দাঁড়য়ে থাকা রামগতি উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আশ্রাফ আলী সারু জানান, ওই কেন্দ্রে প্রায় অর্ধেক ভোটারের আঙ্গুলের ছাপ না মেলায় তারা ভোট দিতে পারেননি। একই কথা বলেন, লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের সদস্য ও কেন্দ্রের ভোটার মো: মুজাহিদুল ইসলাম।
কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো: মিজানুর রহমান জানান, তাদের আঙ্গুলের ছাপ মেলেনি এমন অভিযোগ পাননি তিনি। অন্যদিকে চর ডাক্তার এলাকার আশ্রম কেন্দ্রে গেলে কয়েকজন নারী আঙ্গুলের ছাপ না মিলানোর অভিযোগ করেন।
নির্বাচন কার্যালয় সূত্র জানায়, এ প্রথম লক্ষ্মীপুরে ইভিএমে ভোট গ্রহণ চলছে। রামগতি পৌরসভায় ২০ হাজার ৯শ ৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। এখানে নৌকা প্রতীকে বর্তমান মেয়র মেজবাহ উদ্দিন মেজু ও ধানের শীষে রামগতি পৌর বিএনপির সভাপতি সাহেদ আলো পটুসহ ৬ জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৯ ওয়ার্ডের ১০ টি কেন্দ্রে ৯ জন ম্যাজিস্ট্রেটের অধীনে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরাপত্তায় রয়েছেন।