আশ্রয়ণ প্রকল্পের ভূমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে রাজাপুর উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং

রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধিঃ
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ভূমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম (২য় পর্যায়) শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে ঝালকাঠির রাজাপুরে উপজেলা প্রসাশনের আয়োজনে প্রেস ব্রিফিং ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহাস্পতিবার (১৭জুন) সকাল ১০ টায় উপজেলা পরিষদ হল রুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.মোক্তার হোসেন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান। রাজাপুর প্রেস ক্লাবের সদস্যরা সহ বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত স্থানীয় অন্যান্য সংগঠনের সংবাদকর্মীদের উপস্থিতিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান “মুজিববর্ষে বাংলাদেশর একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না” মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সকল ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যত্রুম চলমান রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ২০ জুন ২০২১ রবিবার সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে একযোগে দেশের সকল উপজেলার উপকারভোগী পরিবারের নিকট গৃহ হস্তান্তর কার্যত্রুমের (২য় পর্যায়) শুভ উদ্ধোধন করবেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে সারা দেশের ন্যায় রাজাপুর উপজেল পরিষদ মিলনায়তনে  ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে সংযুক্ত থাকবে। এ দিনে সারাদেশে একযোগে ২য় পর্যায়ে ৫৩ হাজার ৩ শত ৪০টি পরিবারকে ভুমি ও একক গৃহ প্রদান কার্যত্রুম শুভ উদ্ধোধন করা হবে। উক্ত কার্যত্রুমের আওতায় রাজাপুর উপজেলায় ‘ক’ তালিকায় অর্থাৎ “জমি নাই ঘর নাই” ক্যাটাঘরিতে ২য় পর্যায়ে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ৩৭টি ঘরের অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বন্দোবস্তকৃত ২ শতাংশ খাস জমির কবুলিয়ত ও নামজারী করাসহ আনুষঙ্গিক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বরাদ্দকৃত ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এছাড়া অধিকাংশ ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে।
তিনি আরও জানান, বৃহৎ এ কর্মযজ্ঞে ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা ষাটোর্দ্ধ প্রবীণ ব্যক্তিদের তালিকা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। খাস জমিতে ব্যারাক নির্মাণের মাধ্যমে ২ শতাংশ ইতিমধ্যে সরকারি বরাদ্দ পাওয়া অর্থ ব্যয়ে খাস জমিতে বন্দোবস্ত প্রদান করে একক গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। দুই কক্ষবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরে একটি টয়লেট, একটি রান্না ঘর ও ইউটিলিটি স্পেস রয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণ বাবদ এক লাখ ৭১ হাজার টাকা বরাদ্দে দেওয়া হয়েছে। ২য় পর্যায়ের ৩৭টি ঘরের নির্মান কাজ রাজাপুর সদর ইউনিয়নের বড়কৈবর্তখালীতে চলমান রয়েছে। আগামী ২০ জুন রবিবার সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক গৃহ হস্তান্তর কার্যত্রুমের শুভ উদ্ধোধন ঘোষণার পর পরই কবুলিয়ত দলিল ও সনদপত্র উপকারভোগীদের বুঝিয়ে দেয়া হবে বলে প্রেস ব্রিফিং ও মতবিনিময় সভায় জানানো হয়।